মুরাদনগরে পুলিশ-ডাকাত গুলি বিনিময়

 কুমিল্লা ডেক্স।।মুরাদনগর-ইলিয়টগঞ্জ সড়কের ছালিয়াকান্দি ইউনিয়নের পাটুয়াটুলি নামক স্থানে গাছ ফেলে ব্যারিকেট দিয়ে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে শনিবার রাতে ডাকাত-পুলিশ সংঘর্ষে গুলি বিনিময়ের ঘটনা ঘটেছে। এতে ৫ ডাকাত গুলিবিদ্ধ ও ৩ পুলিশ আহত হয়েছে। এ ঘটনায় ৭ জন ডাকাতকে গ্রেফতার করলে চিকিসাধীন অবস্থায় কামাল উদ্দিন নামে এক ডাকাত মারা যায়। ঘটনার সময় বিপুল পরিমাণ অস্ত্র ও ৪ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে।

জানা যায়, পাটুয়াটুলি নামক স্থানে গাছ ফেলে সড়ক ব্যারিকেট দিয়ে একটি সংঘবদ্ধ সশস্ত্র ডাকাতদল ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছে এমন খবর পেয়ে এস আই বিল্লাল হোসেনের নেতৃত্বে একদল পুলিশ শনিবার রাত অনুমান দেড়টায় ঘটনাস্থলে পৌঁেছ। এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ডাকাতরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। অবস্থা বেগতিক দেখে পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়লে ডাকাতদের সাথে সংঘর্ষ বেধেঁ যায়। খবর পেয়ে থানার ওসি এসএম বদিউজ্জামান ও ওসি (তদন্ত) হাবিবুর রহমানের নেতৃত্বে আরো কয়েকটি পুলিশ দল এবং এলাকাবাসী ঘটনাস্থলে এলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। সংঘর্ষে তিতাস উপজেলার খানেবাড়ি গ্রামের খোরশেদ আলমের ছেলে আন্ত: জেলা ডাকাত সর্দার ফারুক মিয়া (২৮), ডাকাত দলের সদস্য জাহাপুর গ্রামের ইউনুস মিয়ার ছেলে কামাল উদ্দিন (৩০), একই গ্রামের মোশাররফ মিয়ার ছেলে শাহপরান (২৯), দাউদকান্দি উপজেলার পিপুলিয়া কান্দি গ্রামের শামছুল হকের ছেলে মহসীন মিয়া (৩১), চাঁদপুর কচুয়া উপজেলার রাজারামপুর গ্রামের দৌলত মিয়ার ছেলে জুলহাস মিয়া (৩২) গুলিবিদ্ধ ও এএসআই সুমন চাকমা (৩৩), মাসুদ রানা (৩৪) কনষ্টেবল মহব্বত হোসেন (৪৫) আহত হয়। তখন ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ গুলিবিদ্ধ ৫ জনসহ চান্দিনা উপজেলার রশিদপুর গ্রামের মৃত চান মিয়া ব্যাপারীর ছেলে রুবেল মিয়া (২৫) ও শরিয়তপুর জেলার ডামড্যা উপজেলার উত্তর খান গ্রামের মেহের চান গাজীর ছেলে আলমগীর হোসেন (৩৫) নামে আরো দুই ডাকাতকে গ্রেফতার করে। ঘটনার সময় ২টি এলজি, ৪ রাউন্ড গুলি, ৬টি রামদা, ১টি চাইনিজ কুড়াল ও ১টি সাবল উদ্ধার করা হয়েছে। পরে গুলিবিদ্ধ ডাকাত ও পুলিশদের চিকিসার জন্য মুরাদনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে অবস্থা আংশকাজনক হওয়ায় উন্নত চিকিসার জন্যে রাতেই ডাকাতদের কুমেক হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। রোববার দুপুরে চিকিসাধীন অবস্থায় গুলিবিদ্ধ ডাকাত কামাল উদ্দিন মারা যায়। অপর ৪ ডাকাত পুলিশি প্রহরায় কুমেক হাসপাতালে চিকিসাধীন রয়েছে। বাকি ২ ডাকাতকে আজ সোমবার আদালতে সোপর্দ করা হবে বলে জানা গেছে।
এ দিকে এসআই বিল্লাল হোসেন বাদী হয়ে গ্রেফতারকৃত ৬জনসহ নামধারী ১১ ডাকাত ও অজ্ঞাতনামা আরো ১৪/১৫ জনের বিরুদ্ধে ডাকাতির প্রস্তুতি, পুলিশের উপর হামলা ও অস্ত্র আইনে মুরাদনগর থানায় পৃথক ৩টি মামলা রুজু করেছেন। অপর দিকে উক্ত ঘটনার খবর পেয়ে মুরাদনগর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আব্দুল্লাহ আল মামুন রোববার সকালে ডাকাতির প্রস্তুতির ঘটনাস্থল পাটুয়াটুলি এলাকা পরিদর্শন করেন।   
মুরাদনগর থানার ওসি এসএম বদিউজ্জামান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, আশ-পাশের এলাকাবাসী এগিয়ে আসায় ২৪/২৫ জনের ডাকাত দলটি নিবৃত করতে সক্ষম হয়েছে। তারপরও পুলিশের ২২ রাউন্ড গুলিবর্ষণ করতে হয়েছে। আটককৃত প্রত্যেক ডাকাতের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা বিচারাধীন রয়েছেসূএ;কুমিল্লারকাগজ
কুমিল্লানিউজটুয়োন্টিফোরডটকম/মো:রাকিব/১২জুন২০১৭

 

দারোগা বাড়ি, উত্তর চর্থা
কুমিল্লা-৩৫০০, বাংলাদেশ
ই-মেইল: bdcomillanews24@gmail.com
নিউজ রুম: +8801976530514

প্রধান সম্পাদকঃ হুমায়ূন কবির রনি
নিউজরুম এডিটরঃ তানভীর খন্দকার দীপু
নূরুল আমিন জহির
ই-মেইলঃ editor@comillanews24.com