লাইফস্টাইলডেস্ক।। সেহেরিতে মাছ বা মাংসের পদ থাকেই। কিন্তু সেই একই গতানুগতিক ধারার রান্না নিশ্চয়ই প্রতিদিন খেতে ভালো লাগে না। আর সেহেরিতে সবার খাওয়ার রুচি এমনিতেই কম থাকে। তাই খাবার এমনভাবে রান্না করতে হবে যেন তা খেতে একইসঙ্গে সুস্বাদু স্বাস্থ্যকর হয়। তেমনই একটি রেসেপি রুই মাছের উপকরণ: রুই মাছ সেদ্ধ কাপ, আলু সেদ্ধ ১টি, পেঁয়াজ বেরেস্তা হাফ কাপ, লবণ সিকি চা চামচ, আদা বাটা চা চামচ, রসুন বাটা চা চামচ, কর্নফ্লাওয়ার টেবিল চামচ, কাঁচা মরিচ চা চামচ, মরিচ গুড়া চা চামচ, টমেটো সস টেবিল চামচ, গরম মসলা গুড়া চা চামচ, ধনে পাতা কুচি টেবিল চামচ, তেল ভাজার জন্য কোফতা কারি- প্রণালি: টমেটো সস, তেল, গরম মসলা গুড়া বাদে সব উপকরণ মেখে নিয়ে কোফতা বানিয়ে তেলে ভেজে নিতে হবে। এরপর সব কোফতাগুলো হয়ে গেলে। কড়াইয়ে তেল দিয়ে পেঁয়াজ বাটা চা চামচ, রসুন বাটা চা চামচ, আদা বাটা হাফ চা চামচ দিয়ে মসলা কষিয়ে নিন। তারপর টমেটো সস দিয়ে নেড়ে পানি দিন। পানি ফুটে উঠলে কোফতাগুলো দিয়ে ঢেকে রান্না করুন। নামানোর আগে বেরেস্তা ধনে পাতা, কাচা মরিচ দিয়ে একটু ঢেকে রেখে গরম মসলা গুড়া দিয়ে নামাতে হবে

-কুমিল্লানিউজডেক্স/সম্পাদনা/জেনিফার পলি/ ১৮ মে ১৮ইং

লাইফস্টাইলডেস্ক।। শিশু বড় হবার সঙ্গে সঙ্গে তাকে ভালো আচরণ  শেখানোটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সন্তানের মানসিক বিকাশের জন্যও এটা জরুরি। সন্তানের বাড়ন্ত বয়সে শেখানো উচিৎ এমন কিছু মৌলিক আচরণ নিয়েই প্রতিবেদন।


*  আপনার সন্তান যখন কারো কাছে কিছু প্রত্যাশা করবে অথবা চাইবে তখন তাকেপ্লিজ বা দয়া করেএবং কিছু গ্রহণ করার সময়থ্যাংক ইউ বা ধন্যবাদবলতে শেখান। এটা আপনার সন্তানকে বিনয়ী করে তুলবে।

* আপনার সন্তান যখন ভিড়ের মধ্যে কারো দৃষ্টি আকর্ষণ করতে চাইবে তখন তাকেএক্সকিউজমিবলতে শেখান।

* দুজন ব্যক্তির কথোপকথন চলাকালীন তাদের মাঝখানে ব্যাঘাত ঘটানো উচিৎ নয়, যদি না খুব প্রয়োজন হয়। এই ধরণের আচরণ মানুষের মনে নেতিবাচক ধারণা সৃষ্টি করতে পারে। তাই আপনার সন্তানকে এই ধরনের আচরণ করতে নিষেধ করুন।

* কারো চারিত্রিক বা শারীরিক বৈশিষ্ট্য নিয়ে মন্তব্য করাটা কেন উচিত নয় তো বোঝান, যদি তা প্রশংসামূলক না হয়।

* আপনার সন্তানকে সবসময় অনুমতি নিতে শেখানোটা গুরুত্বপূর্ণ। তাহলে যখনই সে কোনোকিছু বুঝতে পারবে না বা কোনো কিছু করার আগে ভালোর জন্য আপনাকে জিজ্ঞেস করে নিবে।

* কিভাবে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করতে হয়, কৃতজ্ঞতা জানিয়ে নোট লিখতে হয় তা শেখান। বিশেষ করে সে যখন কারো কাছ থেকে কোনো উপহার গ্রহণ করে তখন প্রদানকারীকে ধন্যবাদ দেয়ার আগে তা খুলে দেখা বা ব্যবহার করা উচিৎ নয়।

* স্বাস্থ্যবিধি সম্পর্কেও আপনার সন্তানকে সচেতন করা উচিৎ। হাঁচি বা কাশির সময় মুখে রুমাল দিতে শেখান এবং অন্যের সামনে দাঁত নাক খোঁচানো থেকে বিরত থাকতে বলুন এবং সবসময় তাকে টিস্যু ব্যবহার করতে শেখান।

* কেউ যখন তাকে কেমন আছো প্রশ্ন করবে তখন বিনয়ের সঙ্গে জবাব দেওয়া শেখান এবং প্রশ্নটি তাকেও করতে বলুন।

* তাকে বলুন, অন্যের গোপনীয়তাকে সম্মান করা কতটা গুরুত্বপূর্ণ। কারো রুমে প্রবেশের দরকার হলে দরজায় নক করা এবং অনুমতি পাওয়ার আগ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে বলুন।

* আপনার সন্তানকে টেবিলে খাবার সময় ভদ্রতা সম্পর্কে সচেতন করুন। খাবারের প্লেট তার সামনে না আসা পর্যন্ত অপেক্ষা করতে শেখান। 

* অন্যের সুবিধার জন্য সবসময় দরজা খুলে তা ধরে রাখতে শেখান এবং কেউ যদি তার সুবিধার জন্য দরজা খুলে ধরে রাখে তবে অবশ্যই ধন্যবাদ জানাতে বলুন।

* পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা কতটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় সে সম্পর্কে বলুন। খেলাধুলা এবং খাবার পর কিভাবে নিজেকে পরিষ্কার রাখতে হয় তা তাকে শেখান।

* জাতীয় সংগীত, শপথের সময় কিভাবে দাঁড়াতে হয়, কিভাবে আনুগত্য প্রকাশ করতে হয় সে সম্পর্কে শিক্ষা দিন।

* পরিচিত কিংবা অপরিচিত কারো সঙ্গে কথা বলার সময় কিভাবে সম্বোধন করতে হয় সে সম্পর্কে আপনার সন্তানকে অবগত করুন।

* তাকে বলুন, কেন সবসময় প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করাটা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ, হেরে যাওয়া বা জয়ী হওয়াটা বড় কথা নয়।

* চারপাশ অপরিষ্কার না করতে শেখান এবং পরিবেশের জন্য এটা কতটা গুরুত্বপূর্ণ সেটা বলুন।

* আপনার সন্তানকে শেখান, সে অন্যের বাড়িতে প্রবেশের সময় অবশ্যই যেন জুতা খুলে প্রবেশ করে

-কুমিল্লানিউজডেক্স/ সম্পাদনা/মো: জাহাঙ্গীর আলম বিজয়/ ১৮ মে ১৮ইং

লাইফস্টাইলডেস্ক।। ইফতার নিয়ে ইতোমধ্যে সবাই ভাবতে শুরু করেছেন। সারাদিন সিয়াম পালনের পর ইফতারে কী খাবেন সেই প্রশ্ন সবার মধ্যে। একটু ভালো কিছুর আয়োজনের চেষ্টা থাকে সবার। এই আয়োজনের বাইরে নয় ফোর পয়েন্টস বাই শেরাটন। রাজধানীর এই পাঁচতারকা হোটেলে ইফতারে পাওয়া যাবে মরোক্কোর কুইজিনফোর পয়েন্টস বাই শেরাটনের দ্য ইটারি, দ্যা বেস্ট নামক দুই রেস্তোরাঁতে পাবেন হুমুস, বাবা গানোশ, কাবসা, ওরিয়েন্টাল রাইসলুবিয়াবিল জিত, ল্যাম্ব ট্যাগাইন, আফগান চিকেন টিক্কা, টাংরি কাবাব, পাস্তা, আলাফুঙ্গি, চিকেন শর্মা, লেবানিজ স্টাইল গ্রিল চিকেন বাসবুসা, ক্রিম বার্লি, কুনাফা, বাকলাভাসহ আরও অনেক দারুণ সব খাবার   ইটারিতে থাকছে ইফতার ডিনার বুফে একসঙ্গে রেখেছে। টাওয়ার বিল্ডিংয়ে ইটারি বুফে ইফতার খেতে জনপ্রতি খরচ পড়বে চার হাজার ৬০০টাকা, অন্যদিকে ইটারি সুইটসে ইফতারের দাম পড়বে তিন হাজার ১৬২ টাকা জনপ্রতি। প্রতি বৃহস্পতি, শুক্রবার এই অফার প্রযোজ্যবেস্ট রেস্তোরাঁয় মরোক্কান খাবসা প্লেটাররের দাম পড়বে হাজার টাকা। সুতরাং বিশেষ এই ইফতার খেতে হলে আগাম বুকিং দিয়ে চলে যান ফোর পয়েন্ট বাই শেরাটনের রেস্তোরাঁতে

-কুমিল্লানিউজডেক্স/সম্পাদনা/জেনিফার পলি/ ১৬ মে ১৮ইং

 

লাইফস্টাইলডেস্ক।। পবিত্র রমজান উপলক্ষে মধ্যপ্রাচ্যের স্বাদের ইফতারের আয়োজন করছে প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেল।  পারিবারিক, আনুষ্ঠানিক এবং অফিসিয়িাল ইফতার পার্টি আয়োজনেও ব্যবস্থার রেখেছে হোটেলটি। মঙ্গলবার বিকেলে প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁ হোটেলে আয়োজনের বিভিন্ন তথ্য তুলে ধরেন  ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আলমগীর। একই সঙ্গে অনুষ্ঠানে আয়োজিত অতিথিদের মধ্যে পরিবেশন করা হয় বিভিন্ন ইফতারের  আইটেমঅনুষ্ঠানে  প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁ হোটেলের  ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আলমগীর জানান, হোটেলের প্রশস্ত স্থান এবং সুরুচিপূর্ণ খাদ্যের সমাহার সকলকে ভিন্ন রকমের স্বাদ গ্রহণের সুযোগ দেবে। রমজানে হোটেলে ক্যাফে বাজার রেস্টুরেন্টের রন্ধনশিল্পীরা মধ্যপ্রাচ্যের স্বাদের বাহারি ইফতার আইটেম নিয়ে প্রস্তুত। রমজানে মাসব্যাপী আরবীয় নানা খাবারের  অভিজ্ঞতা দেওয়ার জন্য আয়োজন করা হয়েছে লাইভ কুকিং স্টেশন। নানা পানীয়সহ আরও অনেক মুখরোচক আয়োজনইফতারের মেন্যু প্রসঙ্গে গ্রাহক সংযোগ কর্মকর্তা মুশাররাত হাসান প্রমি বলেন, মধ্যপ্রাচ্যের ঐতিহ্যবাহী আরবীয়  স্বাদের  হট অ্যান্ড কোল্ড আরবীয় মেজ্জে যেমন থাকছে তেমনি প্রধান ডিশ হিসেবে থাকছে মধ্যপ্রাচ্যের ঐতিহ্যবাহী বিভিন্ন খাবার। মাংসের নানা পদ, গ্রিল ল্যাম্ব চপ, মাটন কাবাব, শিশ টাউক, ল্যাম্ব শ্যাঙ্ক এবং রসসিক্ত হামুস, মুতাব্বেল আর প্রাচ্যদেশীয় রাইস। তাছাড়া সোনারগাঁও হোটেলের ঐতিহ্যবাহী জনপ্রিয় শাহী হালিম জিলাপী তো থাকছেই

-কুমিল্লানিউজডেক্স/সম্পাদনা/জেনিফার পলি/ ১৬ মে ১৮ইং

 

 

লাইফস্টাইলডেস্ক।। বাংলাদেশে যাত্রা শুরু করলো বিশ্বখ্যাত কালার কসমেটিক ব্র্যান্ড ইংলোট। সোনিক গ্রুপের হাত ধরে দেশের বাজারে প্রবেশ করেছে এই বিউটি প্রসাধনী ব্র্যান্ডটি। রাজধানীর যমুনা ফিউচার পার্কের গ্রাউন্ড ফ্লোরে একটি জমকালো উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ইংলোটের পণ্য এবং আউটলেট উদ্বোধন করা হয় সম্প্রতি। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইংলোটের চেয়ারম্যান জার্গেনইভ ইংলোট। ছাড়া আরও উপস্থিত ছিলেন নিউ দিল্লী পোলান্ড অ্যাম্বাসির ফাস্ট কাউন্সিলর (রাজনীতি) ডেপুটি হেড অব মিশন রবার্ট জিজিক, ইংলোট অ্যাপ্যাক অ্যান্ড মিডিল ইস্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মি. এন সুব্রামনি রায় এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইংলোট বাংলাদেশ সোনিক গ্রুপের ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর নাবিল সুলতানবিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো কোম্পানিটির সম্প্রাসারণ এবং পরিকল্পনা নিয়ে বলতে গিয়ে ইংলোটের চেয়ারম্যান জার্গেনইভ ইংলোট জানান, বাংলাদেশকে একটি বড় সাফল্যের সম্ভাবনা হিসেবে দেখছেন। শ্রী এন সুব্রামনী রায়ও বাংলাদেশে পণ্যটির বাজারের জন্য তার উদ্দীপনা প্রকাশ করেননাবিল সুলতান জানান, ইংলোটের প্রথম আউটলেট যমুনা ফিউচার পার্কে যাত্রা শুরু করেছে। এরপর এরপর বনানী ১১, বসুন্ধরা শপিংমল সীমান্ত স্কয়ারে হবে আসবে ইংলোট। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পাশাপাশি ্যাম্প তারকাদের নিয়ে ফ্যাশন শো অনুষ্ঠিত হয়কণ্ঠশিল্পী হৃদয় খানের গানের মাধ্যমে শেষ হয় আয়োজন

 

 

 

 

 

 

 

 

-কুমিল্লানিউজডেক্স/সম্পাদনা/জেনিফার পলি/ ১৪ মে ১৮ইং

 

 

 

জেনিফার পলি ।। করলার তিতকুটে স্বাদের মিষ্টি গুণের কথা কম বেশি সবারই জানা। মেদ ঝরানোর পাশাপাশি ক্যানসার, ডায়াবিটিস, হাঁপানির মতো রোগ নিরাময়ে করলার খুবই গুরুত্ব রয়েছে। চলুন জেনে নেই করলার রসের নানা উপকারিতা- বিজ্ঞান পত্রিকাবিএমসি কমপ্লিমেন্টারি অ্যান্ড অলটারনেটিভ মেডিসিন’-এর রিপোর্ট বলছে, নানা পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ করলা খুব দ্রুত দেহের ওজন কমাতে সাহায্য করে। করলার রস দিয়ে হেলথ ড্রিঙ্ক বানিয়ে খেলে কাজ হয় খুব তাড়াতাড়ি বর্তমান প্রজন্মের একটা বড় অংশ ওবেসিটির শিকার। বিশেষজ্ঞদের মতে, করলার রস ফ্যাট সেলগুলো বার্ন করে এবং সেই জায়গায় নতুন ফ্যাট সেল তৈরি হতে বাধা দেয়। ডায়াবেটিস রোগীদের জন্যও করলার রস খুব উপকারিকরলার মধ্যে রয়েছে পলিপেপটাইড বি, ভিসিন এবং ক্যারাটিন। প্রতিদিনের ডায়েটে করলার জুস রাখলে উচ্চরক্তচাপ কমে। রক্তে শর্করার পরিমাণও নিয়ন্ত্রণে থাকেবিজ্ঞানপত্রিকাকারসিনোজেনেসিস’-এর রিপোর্ট বলছে, করলার জুস অগ্নাশয়ের ক্যান্সার রোধ করে। ক্যান্সার সৃষ্টিকারী কোষগুলিকে নির্মূল করে। বিজ্ঞানপত্রিকাপাবমেড’-এর তথ্য অনুযায়ী স্তন ক্যান্সার রোধে করলার জুসের গুরুত্ব রয়েছেহাঁপানি এবং ফুসফুসের যেকোনো রোগ প্রতিরোধ করে করলার জুস। নিয়মিত করলার জুস খেলে ত্বক অনেক টানটান এবং তরতাজা দেখায়। বলিরেখা দূর হয়করলার মধ্যে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। মধু মিশিয়ে করলার জুস খেলে হজম শক্তি বাড়ে। তাছাড়া এতে রয়েছে ফাইবার, যা পরিপাকতন্ত্রকে সক্রিয় রাখেকরলার জুস যেভাবে বানাবেন:

করলা ভালো করে ধুয়ে নিয়ে ছোট পিস করে কাটুন। তেতো খেতে খুব সমস্যা হলে ব্লেন্ডারে করলার সঙ্গে অন্যান্য সবজি দিয়ে মিশ্রণ তৈরি করুন। স্বাদ বাড়ানোর জন্য ওই মিশ্রণে কয়েক ফোঁটা মধু মিশিয়ে নিয়ম করে প্রতিদিন সকালে খান

-কুমিল্লানিউজডেক্স/সম্পাদনা/জেনিফার পলি/ ১৪ মে ১৮ইং

 

 

লাইফস্টাইলডেস্ক।। বৈশাখের দিন খাবার টেবিলে মজাদার লেবু ইলিশ রাখতে পারেন। ব্যতিক্রমী স্বাদের এই আইটেমটি ভাতের সঙ্গে খেতে সুস্বাদু। জেনে নিন কীভাবে রান্না করবেন লেবু ইলিশ

 উপকরণ

ইলিশ মাছ টুকরা
এলাচি লেবু- ১টি
লেবু পাতা- ২টি
পেঁয়াজ বাটা- টেবিল চামচ
আদা বাটা- চা চামচ
রসুন বাটা- চা চামচ
মরিচ গুঁড়া- চা চামচ
কাঁচামরিচ- /৫টি
তেল- টেবিল চামচ
চিনি- /২চা চামচ
লবণ- স্বাদ মতো
প্রস্তুত প্রণালি
মাছের টুকরার সঙ্গে টেবিল চামচ লেবুর রস মিশিয়ে ১৫ মিনিট রেখে দিন। এবার বাটা গুঁড়া মশলা দিয়ে মেখে রাখুন আরও ১৫ মিনিট। কড়াইয়ে তেল গরম করে পেঁয়াজ কুচি হালকা বাদামি করে ভেজে মাছ দিয়ে কষিয়ে নিন। কষানো হলে অল্প পানি দিয়ে মিনিট ঢেকে রান্না করুন। এবার মাছ উল্টে লেবু পাতা, কাঁচামরিচ চিনি দিয়ে আরও ৫মিনিট রান্না করুন। চুলা বন্ধ করে লেবুর রস দিয়ে নামিয়ে পরিবেশন করুন

-কুমিল্লানিউজডেক্স/সম্পাদনা/জেনিফার পলি/ ৭ মে ১৮ইং

 

লাইফস্টাইলডেস্ক।। কলার মোচা অথবা কলার থোড় ঘণ্ট খুবই সুস্বাদু একটি খাবার। স্বাদে ভিন্নতা নিয়ে আসতে গরম ভাতের সঙ্গে পরিবেশন করতে পারেন মজাদার কলার মোচা ঘণ্ট। জেনে নিন রেসিপি

উপকরণ


কলার মোচা- ২টি
রসুন বাটা- চা চামচ
পেঁয়াজ কুচি- কাপ
মরিচ গুঁড়া- আধা চা চামচ
ধনে গুঁড়া- আধা চা চামচ
জিরার গুঁড়া- আধা চা চামচ  
হলুদ গুঁড়া- আধা চা চামচ
আদা বাটা- চা চামচ
লবণ- স্বাদ মতো
গরম মসলা- / চা চামচ
সরিষার তেল- আধা কাপ
শুকনা মরিচ- ২টি
দারুচিনি- কয়েক টুকরা
এলাচ- ৪টি
তেজপাতা- ৩টি  
কাঁচামরিচ- -৩টি
ছোট চিংড়ি মাছ- আধা কাপের বেশি
প্রস্তুত প্রণালি
মোচার উপরে বড় পাপড়ির মতো অংশ একটা একটা করে খুললে ভেতরে অনেকগুলো ফুল পাওয়া যাবে। ফুলের ভেতর থেকে লম্বা অংশ ছোট পাপড়ির মতো অংশ ফেলে দিন। এভাবে মোচার উপরের পাপড়ির অংশ খুলতে খুলতে ভেতরে একদম নরম একটি অংশ পাওয়া যাবে। সেটি কুচি করে কেটে ফেলুন। এবার সব একসঙ্গে পানিতে ভিজিয়ে রাখুন ঘণ্টা।
চুলায় হাঁড়িতে এক কাপ পানি গরম করে আধা চা চামচ হলুদ গুঁড়া একই পরিমাণ লবণ দিয়ে দিন। পানিতে বলক আসলে ভিজিয়ে রাখা মোচা দিয়ে দিন। পানি দেবেন না। শুধু মোচার টুকরা দেবেন। মাঝারি আঁচে ঢেকে দিন হাঁড়ি। সেদ্ধ হলে নামিয়ে ঠাণ্ডা করে বেটে নিন অথবা ব্লেন্ড করে নিন।  
চুলার প্যানে তেল দিন। মাঝারি আঁচে দারুচিনি, শুকনা মরিচ, তেজপাতা এলাচ ভেঙে দিয়ে দিন। আধা কাপ পেঁয়াজ কুচি দিন। ভাজা ভাজা হলে আদা রসুন বাটা দিয়ে নাড়তে থাকুন। সামান্য ভাজা হলে খানিকটা পানি দিয়ে একে একে মরিচ গুঁড়া, ধনে গুঁড়া, হলুদ গুঁড়া, গরম মসলা গুঁড়া, জিরার গুঁড়া লবণ দিয়ে দিন। আরও খানিকটা পানি দিয়ে কষিয়ে নিন মসলা। তেল উঠে আসলে পরিষ্কার করে রাখা চিংড়ি সামান্য পানিসহ দিয়ে দিন। মিনিটের মতো কষানো হলে বেটে রাখা কলার মোচা দিয়ে দিন। পানি শুকিয়ে গেলে আধা কাপ পেঁয়াজ কুচি দিয়ে দিন। আরেকটু ভাজা ভাজা হলে আরও চা চামচের মতো তেল দিয়ে দিন। কাঁচামরিচ চিড়ে ছিটিয়ে নিন। নেড়ে নামিয়ে পরিবেশন করুন।

 -কুমিল্লানিউজডেক্স/সম্পাদনা/জেনিফার পলি/ ৭ মে ১৮ইং

 

লাইফস্টাইলডেস্ক।। বাজারে পাওয়া যাচ্ছে কাঁচা আম। মজাদার টক ডাল রান্না করে ফেলতে পারেন কাঁচা আম দিয়ে। জেনে নিন কীভাবে রান্না করবেন

উপকরণ

কাঁচা আম- ২টি
মসুর ডাল- কাপ  
মুগ ডাল- কাপ
পাঁচফোড়ন- আধা চা চামচ
লবণ- স্বাদ মতো
চিনি- সামান্য
শুকনা মরিচ- -৫টি
হলুদ গুঁড়া- চা চামচ,
জিরা- আধা চা চামচ
সরিষার তেল- আধা চা চামচ
লেবু- অর্ধেকটি
প্রস্তুত প্রণালি
আমের খোসা ছাড়িয়ে টুকরা করে কেটে লবণ সামান্য হলুদ দিয়ে মেখে রেখে দিন। মসুর ডাল মুগ ডাল ধুয়ে লবণ-হলুদ দিয়ে প্রেশার কুকারে সেদ্ধ করে নিন। কড়াইয়ে সরষের তেল গরম করে পাঁচফোড়ন, শুকনা মরিচ জিরা ফোড়ন দিন। আমের টুকরোগুলো ফোড়নের মধ্যে দিয়ে সামান্য ভেজে নিন। সেদ্ধ করে রাখা ডাল দিয়ে স্বাদ মতো লবণ  চিনি দিন। প্রয়োজন অনুযায়ী পানি দিয়ে ডাল ফুটতে দিন। লেবু কেটে ডালের উপরে ছড়িয়ে নামিয়ে নিন মজাদার টক ডাল

-কুমিল্লানিউজডেক্স/সম্পাদনা/জেনিফার পলি/ ৭ মে ১৮ইং

 

লাইফস্টাইলডেস্ক।। চুল ভালো রাখতে ডিপ কন্ডিশনিংয়ের বিকল্প নেই। কলা, মধু, দইসহ বিভিন্ন উপাদান একসঙ্গে মিশিয়ে তৈরি করে নিতে পারেন ঘরোয়া কন্ডিশনার। এটি চুল ঝলমলে করবে। পাশাপাশি কমাবে চুল পড়া

যেভাবে তৈরি ব্যবহার করবেন কন্ডিশনার

  • ২টি কলা ছোট ছোট টুকরা করে কেটে চটকে নিন
  • চা চামচ দই মেশান
  • টেবিল চামচ নারকেলের দুধ মেশান
  • টেবিল চামচ মধু মিশিয়ে নেড়ে নিন
  • টেবিল চামচ নারকেল তেল মিশিয়ে নিন মিশ্রণে
  • টেবিল চামচ অলিভ অয়েল মেশান
  • কয়েক ফোঁটা গোলাপজল মিশিয়ে নিন
  • টেবিল চামচ দই মিশিয়ে ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করুন মিশ্রণটি
  • চুলের জট ছাড়িয়ে ভিজিয়ে নিন
  • ভেজা চুলের আগা থেকে গোড়া পর্যন্ত লাগান কলার কন্ডিশনার
  • শাওয়ার ক্যাপ পরে ৩০ মিনিট অপেক্ষা করুন
  • প্রচুর পানি দিয়ে ধুয়ে শ্যাম্পু করে ফেলুন।  

-কুমিল্লানিউজডেক্স/সম্পাদনা/জেনিফার পলি/ ৭ মে ১৮ইং

 

 

Page 1 of 13

দারোগা বাড়ি, উত্তর চর্থা
কুমিল্লা-৩৫০০, বাংলাদেশ
ই-মেইল: bdcomillanews24@gmail.com
নিউজ রুম: +8801976530514

প্রধান সম্পাদকঃ হুমায়ূন কবির রনি
নিউজরুম এডিটরঃ তানভীর খন্দকার দীপু
ই-মেইলঃ editor@comillanews24.com